মোবাইলে ফোন দিয়ে ব্লগিং করে আয়

মোবাইল দিয়ে লেখালেখি করে টাকা আয়?

 

বর্তমান সময়ে টাকা সবারই প্রয়োজন সবাই চাই টাকা আয় করতে যে করে হোক টাকা চাই । আবার অনেক মানুষের শখ ও বটে অনলাইন হতে আয় করার আজকের আপনাদের সাথে এমন একটি পদ্ধতি শেয়ার করবো এই পদ্ধতি ফলো করলে আপনি মোবাইল দিয়ে আয় করতে পারবেন।

শুধু আয় না নিজের পরিচিত ও লাভ করতে পারবেন অনেক মানুষ অনেক রকমের আয়ের কথা বলবে আপনাকে হয়তো কিছু কিছু পদ্ধতি আয় করতে পারবেন আবার কিছু পদ্ধতিতে নিজের সময় লস করবেন আর কিছু না। আজকে আপনাদের সাথে যে আয়ের কথা শেয়ার করবো এই আয়ের টাকা দিবে গুগল নিজেই।

আরও পড়তে পারেন,

 

নিজেকে পরিবর্তন করার উপায় 

২ টি ব্যাঙ একটি বালতির ভিতরে জীবন মরণ লড়াই করতেছে

 কিভাবে Passive Income শুরু করা যায়

 বিজ্ঞানের বই যা পড়া উচিত সবার

কন্টেন্ট কাকে বলে?

বিশেষ করে অনলাইন হতে আয় করতে গেলে বিভিন্ন ওয়েবসাইট এড দেখে তো অনেক ডলার আয় করে নি তবে সেই টাকা নিজের পকেটে আসে না, কারণ এই ওয়েবসাইট হলো ২ নাম্বারি, আজকে আপনাদের কে বলবো গুগল কেন আপনাদের কে টাকা দিবে। বলে রাখা ভালো গুগল হতে যা আয় করবেন সেটা ১০০% আপনার পকেটে আসবে কোন সন্দেহ নেই। কারণ গুগল হলো বিশ্বের ১ নাম্বার ইন্টারনেট কোম্পানি, গুগল থেকে যা আয় হবে সব টাকা নিজের পকেটে আসবে ।মোবাইলে ফোন দিয়ে ব্লগিং করে আয়

গুগল কেন আমাদের কে টাকা দিবে?

গুগল আমাদেরকে এমনি এমনি টাকা দিবে না। আমরা কষ্ট করবো সেই কষ্টের মজুরি দিবে। গুগলের আয়ের উৎস হলো এড, মানুষকে এড দেখিয়ে গুগল আয় করে। গুগল এড দেখায় কোথায় ওয়েবসাইট অথবা ইউটিউবে। আপনি চাইলে মোবাইল দিয়ে ইউটিউব ভিডিও তৈরি করে আয় করতে পারবেন। আজকে আমরা লেখালেখি করে গুগল থেকে আয় সম্পর্কে জানবো।

আপনারা হয়তো ব্লগিং এর কথা শুনেছেন ব্লগিং করে অনলাইনে আয় করতেছে এই ব্যক্তি এত ডলার ইত্যাদি। ব্ল

মোবাইল দিয়ে লেখালেখি করে আয়?

লেখালেখি করার জন্য প্রয়োজন একটা টপিক বা মাধ্যম। আপনি যে কোন বিষয়ের ওপর লেখালেখি করতে পারেন। কোন বিষয়ের ওপর লেখালেখি করবেন, আপনি যে বিষয় নিয়ে ভালো জানোন সেটা নিয়ে লেখালেখি শুরু করুন। হয়তো এখন প্রশ্ন আসতে পারে কি করে বুঝবো আমি কি বিষয়ের ভালো জানি। এটা বাহির করা আপনার দায়িত্ব। আপনি কি বিষয়ে ভালো জানেন এটা বাহির করার জন্য আপনাকে কোরার সাহায্য নিতে হবে। bn.quora.com

এইখানে গিয়ে sing up করে নিন আপনার পছন্দ মতো এবং বিভিন্ন প্রশ্ন ও উওর এইখানে পাবেন। কোরা কি? কোরা হলো প্রশ্ন এবং উওর দেওয়ার সাইট, আপনার কোন প্রশ্ন থাকলে এইখানে করতে পারেন, বিভিন্ন মানুষ এইটার উওর দিবে।

আপনার কোন উওর জানা থাকলে এই সাইটে করতে পারবেন। বিভিন্ন প্রশ্নের উওর দেওয়ার মাধ্যমে আপনি বুঝতেই পারবেন আপনার কোন বিষয় দিয়ে লেখালেখি করা উচিত বা ব্লগিং করা উচিত।

যেই প্রশ্ন আপনি পারবেন মনে হয় তাহলে সুন্দর করে উপস্থাপন করে এই প্রশ্নের উওর দিন উওর দেওয়ার শেষে সেই উওর কেমন হয়েছে জানতে চাইতে পারেন। মনে করুন কেউ ভ্রমন নিয়ে প্রশ্ন জিজ্ঞেস করলো আপনার যদি ভ্রমন নিয়ে আইডিয়া থেকে থাকে তাহলে এই উওরটি বিস্তারিত ভাবে উপস্থাপন করুন।

এই ভাবে বিভিন্ন প্রশ্নের উওর দেওয়ার মাধ্যমে নিজেই বুঝতে পারবেন কি বিষয় নিয়ে ব্লগিং করলে আপনি খুব সহজে বিভিন্ন টপিক নিয়ে লেখেলেখি করতে পারবেন।৫টি ফ্রিল্যান্সিং স্কিল যার চাহিদা থাকবে সব সময়

 

আরও পড়তে পারেন 

মানুষের দৃষ্টিভঙ্গির ভিতরে লুকিয়ে থাকে সফলতা

বাংলা ভাষায় লেখালেখি করে অনলাইনে আয় 

৭টি বিষয়ের উপর সফল ব্যাক্তিরা সময় নষ্ট করে না

৫টি ফ্রিল্যান্সিং স্কিল যার চাহিদা থাকবে সবসময় 

আর হা মনে রাখবেন ব্লগিং কে একদিন বা ১মাসের জন্য বিবেচনা করবেন না। ব্লগিং করার জন্য অন্তত ৫-৬ মাস হাতে সময় নিয়ে ব্লগিং করা উচিত। যদি মনে করেন শর্ট টাইমে আয় করবেন ব্লগিং থেকে তাহলে ব্লগিং না করায় ভালো হবে।

হয়তো অনেকে বলে থাকবে অথবা ইউটিউবে বিভিন্ন ভিডিও দেখে থাকবেন ১-২ মাসে ভালো লেখালেখি করে অনলাইন হতে $৪০০-$৫০০ ডলার আয় করুন। এগুলো সবই ভুয়া ইউটিউবাররা তাদের ভিউ বাড়ানোর জন্য এমন থামনেল ব্যবহার করে থাকে। আবার বিভিন্ন ব্লগাররা ও তাদের ব্লগে ভিজিটর বাড়ানোর জন্য এমন পোস্ট করে থাকে।

কন্টেন্ট রাইটার করে আয়

যেমন ব্লগিং করে প্রতিমাসে লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করুন ইত্যাদি। হা এটা সত্যি ব্লগিং করে লক্ষ লক্ষ টাকা আয় করা সম্ভব তবে তার জন্য আপনাকে অনেক মেহনত করতে হবে আপনার ব্লগ সাইটে ৩-৪ বছর + সময় দিতে হবে এক সময় পর এই টাকা আসা শুরু হবে তার আগে নয়।

আপনি নতুন অবস্থায় ১০-১২ হাজার টাকা আয় করতে পারবেন নতুন অবস্থায় তাও ৬ মাস সময় দেওয়ার পর। ব্লগিং কোন শর্ট টাইম এর জন্য না। ব্লগিং হলো লং টদইম এবং লাইফটাইমের জন্য একটা আয়ের উৎস।

মোবাইল দিয়ে কি সম্ভব ব্লগিং করা?

হা অবশ্যই সম্ভব মোবাইল দিয়ে। তবে পুরাপুরি নয়। এই ব্লগপোস্ট টি আমি মোবাইল দিয়ে লেখতেছি তবে এই পোস্টটি পাবলিশার্স করবো কম্পিউটার থেকে। মোবাইল দিয়ে ও করা সম্ভব তবে আমার মোবাইল দিয়ে করতে সংকুচ লাগে তাই মোবাইল ফোন দিয়ে করি না। বর্তমান সময়ে মোবাইল ফোন দিয়ে অনেক কিছু করা যায়, মোবাইল দিয়ে অনলাইনে ও আয় করা যায়।

হয়তো বলা যেতে পারে সামনের টেকনোলজি মোবাইল টেকনোলজি বলা মুশকিল। আয় করতে প্রয়োজন মনোবল শক্তি, আপনার কম্পিউটার থাকুক বা না থাকুক আপনার মনোবল শক্তি থাকলে অনলাইনে কিংবা অফলাইনে আয় করতে পারবেন।

মানুষের সবচেয়ে বড় অজুহাত হলো সে মানুষ নিজেই, আমি কি এটা করতে পারবো, হয়তো আমার দ্বারা এইটা হবে না হেন তেন কত নানান অজুহাত দিয়ে থাকে মানুষ। আপনার ভিতরের লুকিয়ে থাকা মনোবল শক্তিকে কাজে লাগান দেখবেন সফলতা আপনার কাছে এসে ধরা দিবে। মানুষের দৃষ্টিভঙ্গির ভিতরে লুকিয়ে থাকে সফলতা।

কন্টেন্ট বিক্রি করে আয়?

কন্টেন্ট কি? কন্টেন্ট হলো ব্লগ পোস্ট কে বোঝানো হয়ে থাকে। আমরা ইউটিউবে ভিডিও দেখে থাকি এগুলো একেকটি কন্টেন্ট, এগুলো কে ভিডিও কন্টেন্ট বলে থাকে। আপনার কন্টেন্ট যত ভালো হবে ভিজিটর আপনার কাছে আসবে। এই ওয়েবসাইট অনেক রকমের কন্টেন্ট দেখে থাকবে এগুলো একেকটি একক রকমের কন্টেন্ট। 

আপনি যে বিষয়ে ভালো লেখতে পারেন সেই ব্লগ পোস্টটি বিক্রি করতে পারেন বিভিন্ন ব্লগার কে। মনে করুন আপনি রান্না নিয়ে ভালো জানেন। আজকে আপনি হালুয়া তৈরি করেছেন বা অন্য কিছু হালুয়া তৈরি করার পুরো রেসিপি টা আপনি ব্লগ পোস্ট হিসাবে বিস্তারিত ভাবে লেখতে পারেন, মিনিমাম ২০০০-২৫০০ শব্দের মধ্যে লেখে যারা ফুড ব্লগিং করে তাদের সাথে যোগাযোগ করে আপনার আর্টিকেল টি তাদের কাছে বিক্রি করতে পারেন সচারাচর বাংলা আর্টিকেল ৫০০-১৫০০ টাকার মধ্যে দিয়ে থাকে।

আরেকটা জিনিস মাথায় রাখতে হবে আপনার হুট করে লেখে যোগাযোগ করলে হয়তো আপনাদেরকে এলাউ না করতে পারে, আপনার থেকে অভিজ্ঞতা চাইতে পারে তার জন্য আপনি bn.quora তে লেখালেখি করে তাকে ইমপ্রেস করতে পারেন অথবা সম্ভব হলে নিজেই একটা ব্লগ সাইট তৈরি করে সেখানে নিজের অভিজ্ঞতা ভাগাভাগি করতে পারেন।

মনে রাখবেন কন্টেন্ট হলো কিং একটা ওয়েবসাইটের। আপনার কন্টেন্ট যত ভালো হবে আপনার ব্লগসাইট ততই জনপ্রিয় হবে। নতুন অবস্থায় আপনাদেরকে কন্টেন্ট এর জন্য টাকা নাও দিতে পারে কয়েকটি কনটেন্ট ফ্রীতে দিয়ে পরবর্তী কন্টেন্ট এর জন্য টাকা চাইতে পারেন।

জনপ্রিয় হওয়ার জন্য লেখালেখি?

আমাদের সমাজে অনেক মানুষ আছ জনপ্রিয় হওয়ার জন্য লেখালেখি করে থাকে। এমন মানুষকে খুঁজে বাহির করে তাদের কাছে নিজের আর্টিকেল বিক্রি করতে পারেন। যারা সমাজে জনপ্রিয় হওয়ার জন্য লেখালেখি করে তাদেরকে কাছে খুব সহজে কম সময়ের মধ্যে আর্টিকেল বিক্রি করতে পারবেন তারা আর্টিকেল কিনতে চাই।

তারা কেন কিনতে চাই তাদের হাতে সময় থাকেনা নয়তো বা লিখতে চাই না তাই অন্যর কাছ থেকে আর্টিকেল ক্রয় করে সেটা নিজের নামে প্রচার করে থাকে। তাদেরকে কোথায় খুঁজে পাবেন bn.quora তে কিংবা সোশ্যাল মিডিয়া তে এমন অনেক মানুষ পাবেন। মানুষ খুঁজার আগে নিজের লেখালেখি স্কিল কে ভালো করে দক্ষ করুন। একজন ভালো লেখকের মূল্য অনেক বেশি। আরও অনেক ভাবে বাংলা ভাষায় লেখালেখি করে আয় করা যায়

সর্বশেষ কিছু কথা, নিজেকে কখনো ছোট মনে করবেন না, কখনো হালছাড়বেন না।হয়তো নতুন অবস্থায় আপনাকে কেউ আর্টিকেল লেখার জন্য টাকা দিবে না, তবে একসময় দিবে তার জন্য আপনাকে ধৈর্য ধারণ করতে হবে।

অনলাইনে আয় করতে হলে ধৈর্য ধারণ করার ছাড়া আর কিছুই না যে ধৈর্য ধারণ করে থাকবে সে অনলাইন থেকে আয় করতে পারবে ভালো মতো।কোন কিছু জানার থাকলে কমেন্টে করে জানাতে পারেন। ভালো লাগলে বন্ধুদের মাঝে শেয়ার করুন।

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Scroll to Top